31 C
Dhaka

অনিয়মের প্রতিবাদে লেবার কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের মানববন্ধন

শ্রম আদালত ও শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালের বেহাল দশা ও বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে রাজধানীর দৈনিক বাংলা মোড়ে শ্রম ভবনের সামনে লেবার কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন ও বিচার প্রার্থীদের নিয়ে এক মানববন্ধন আয়োজিত হয়েছে। এ সময় নানা অনিয়মসহ বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বরাবর স্বারক লিপি দেন।

প্রকাশিত:

শ্রম আদালত ও শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালের বেহাল দশা ও বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে রাজধানীর দৈনিক বাংলা মোড়ে শ্রম ভবনের সামনে লেবার কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন ও বিচার প্রার্থীদের নিয়ে এক মানববন্ধন আয়োজিত হয়েছে। এ সময় নানা অনিয়মসহ বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বরাবর স্বারক লিপি দেন।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, মাননীয় মন্ত্রী, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রনালয়। আপনার সদয় অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ঢাকাসহ মোট ১০টি শ্রম আদালত ও ঢাকায় ১টি শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনাল এর মাধ্যমে শ্রমিকদের দায়েরকৃত মোকদ্দমাসমূহ নিষ্পত্তি করা হয়।

বর্তমানে অধীনস্থ আদালতে প্রায় ১৮,০০০ (আঠার) হাজার মোকদ্দমা বিচারাধীন। অন্যান্য আদালতে বিচারকার্য স্বাভাবিকভাবে চলমান থাকলেও বিগত প্রায় দেড় বছর ধরে শ্রম আপীল ট্রাইবুন্যালে বিচারকার্যে ব্যাপক অনিয়ম পরিলক্ষিত হয়। যার মধ্যে (১) আদালত সঠিক সময় ও নিয়মিত না বসা, (২) মামলার দৈনিক কার্যতালিকা হালনাগাদ না করা, (৩) বিচারকার্যে মামলার দীর্ঘসূত্রীতা, (৪) বিচারিক মামলার নথি খুঁজে না পাওয়া ও (৫) আইনজীবীদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করা।

আমাদের লেবার কোর্ট বার এসোসিয়েশনের পক্ষে কার্যনির্বাহী কমিটি বিভিন্ন সময় উপরে উল্লেখিত অনিয়ম দূরীকরণের লক্ষ্যে মাননীয় শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালের দায়িত্বরত চেয়ারম্যানের সাথে একাধিকবার আলাপ আলোচনা করলে তিনি উল্লেখিত বিষয়গুলো সমাধানের আশ্বাস দেন।

কিন্তু চেয়ারম্যান সমস্যাগুলোর সমাধানের উদ্যোগ গ্রহণ না করায় লেবার কোর্ট বার এসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে কার্যনির্বাহী কমিটির সব সদস্য শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যানের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও উপরোক্ত অনিয়মের বিষয়গুলো আলোচনাকালে বারের সভাপতি ক্রমানুযায়ী এক এক করে সব অনিয়ম তুলে ধরেন।

কার্যনির্বাহী কমিটির সব বক্তব্য শুনে চেয়ারম্যান বলেন, আপনাদের কথাগুলো আমি গ্রহণ করতে পারলাম না। আমি যেমন আছি, যেভাবে বিচারকার্য পরিচালনা করছি সেভাবেই চলবে। এছাড়া তিনি আইনজীবীদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন।

শ্রম আপেল ট্রাইব্যুনালের বিচারকার্য দ্রুত নিষ্পত্তি হোক, মামলার জট নিরসন হোক, বিচারোপ্রার্থী বিচার পাক, চেয়ারম্যানের বিচার কার্য পরিচালনা না করার প্রবণতা, এসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী কমিটির সাথে অসহযোগিতা ও অসৌজন্যমূলক আচরণ ও কার্যকলাপ হতে পরিত্রাণ চাই।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন লেবার কোর্ট বার এসোসিয়েশন সভাপতি, এ্যাড মোঃ সেলিম আহসান খান, সহ-সভাপতি এ্যাড মোঃ মহসীন মজুমদার, সভাপতি, এ্যাড আব্দুর সাত্তার, সাধারণ সম্পাদক, মো. বেলায়েত হোসেনসহ লেবার কোর্ট বার এসোসিয়েশনের আইনজীবি ও বিচার প্রার্থীরা।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img