20 C
Dhaka

ঈদের নামাজ পড়তে দেবেন না : জাফরুল্লাহ

প্রকাশিত:

কারাবন্দি হেফাজতে ইসলামের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকসহ আলেম ওলামাদের মুক্তির দাবি জানালেন গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। আগামী দুদিনের মধ্যে তাদের মুক্তি না দিলে হাইকোর্ট ঘেরাওয়ের হুমকিও দিয়েছেন এই বর্ষীয়ান নাগরিক।

‘হয়রানিমূলক মামলায় রাজবন্দি ও ধর্মীয় নেতাদের দীর্ঘ কারাবাস: নাগরিক সমাজের উদ্বেগ’ শীর্ষক এক আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডা. জাফরুল্লাহ একথা বলেন। গণমতামত কেন্দ্র নামে একটি সংগঠন রবিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এই আলোচনার আয়োজন করে।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘মামুনুল হকের আইনি অধিকার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। তার পরিবারকে গত ১৫ মাসে একবার দেখা করতে দেওয়া হয়েছে। মামুনুল হকসহ অন্য আলেমদের তাদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে না দেওয়া জালেমের কাজ।’

প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘মানবিক না হলে যতই নামাজ তাহাজ্জুদ কোরআন পড়েন এবং কোরবানি করেন কোনো কাজ হবে না। ক্ষমা পাবেন না। আটককৃতদের মুক্তি দেন। এসব বন্ধ করেন।’

‘আগামী দুদিনের মধ্যে আলেম ওলামাসহ রাজবন্দিদের মুক্তি না দিলে ১০ হাজার মানুষ নিয়ে হাইকোর্ট ঘেরাও করবো। বসে থাকবো ঈদের নামাজ পড়তে দেবো না। আমার শ্বাস কষ্ট আছে। যদি মরে যাই তা হবে সম্মানজনক মৃত্যু।’

নরেন্দ্র মোদি ‘খারাপ লোক’ আর আলেমরা সেকথাটি বলেছেন মন্তব্য করে গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘আলেমরা এজন্যই চাননি তিনি বাংলাদেশে আসুক। তাই আন্দোলন করেছেন। তাই বলে কি তাদের আটকিয়ে রাখবেন?’

আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল অব. সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ

spot_img