31 C
Dhaka

গ্রীন লাইফ হাসপাতালে প্রধান উপদেষ্টার অভিনব প্রতারণা

প্রকাশিত:

নোয়াখালী প্রতিনিধি: গ্রীন লাইফ হসপিটালের প্রধান উপদেষ্টা মোঃ তাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে।

তাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগ- প্রতিষ্ঠানের কোনো শেয়ার হোল্ডার বা পার্টনার না হয়েও নিয়মবহির্ভূতভাবে প্রধান উপদেষ্টা হয়ে সব শেয়ারহোল্ডারের কাছ থেকে টাকা গ্রহণ করেন। এবং ব্যাংক একাউন্ট খোলেন (পূবালী ব্যাংক,হসপিটাল রোড়,মাইজদী কোর্ট, নোয়াখালী, একাউন্ট নং ৬২২২৮)।তাহার প্রতারণা বুঝতে পেরে একজন শেয়ার হোল্ডার ১৯/০৮/২২ ইং তারিখ শেয়ার উত্তলনের আবেদন করেন এবং ২১/০৮/২২ ইং তারিখ উকিল নোটিশ প্রেরন করেন।তাহার উকিল নোটিশের খবর জানতে পেরে তিনি প্রধান ও একাউন্ট থেকে অব্যাহতি নেন।অনিয়ম ও প্রতারণার কারনে প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক(এমডি) সজল কুমার দাস ২৯/০৬/২২ ইং তারিখ অব্যাহতি নেন।গত ০৬/১০/২২ ইং তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সিভিল সার্জন অফিস,নোয়াখালী তে লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়।

অভিযোগের ভিত্তিতে সিভিল সার্জন ডাঃ মাসুম ইফতেখার ৩ (তিন) দিনের মধ্যে অভিযোগকারীর শেয়ার ও লভ্যাংশের অর্থ পরিশোধ করে ও মালিকদের তালিকা (রোটারী পাবলিক সমন্বিত) দাখিল করতে নির্দেশ প্রদান করেন। এখানেও তিনি প্রতারণার আশ্রয় গ্রহণ করেন। প্রতিষ্ঠানের উল্যেখযোগ্য শেয়ার হোল্ডারদের সাথে কোনো রকম পরামর্শ না করে ও কোন কিছু না জানিয়ে একটি নোটারিকৃত তালিকা প্রদান করেন এবং অভিযোগকারীর বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি যা রাষ্ট্রীয় আইনের লঙ্ঘন এবং শাস্তি যোগ্য অপরাধ।

উল্যেখ্য, উক্ত প্রতিষ্ঠানটি ইসলামিয়া হসপিটাল নামে ছিল। অনিয়ম ও দুর্নিতির কারণে সিলগালা করা হয়েছিল এবং একরামুল মোমেনিন বরকত ও শিব্বির আহমেদকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছিল। অভিযোগকারীদের দাবি, এসব প্রতারকদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যাবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img