20 C
Dhaka

নির্বাচনী সহিংসতায় পুলিশের গুলি, মায়ের কোলে ছিন্নভিন্ন শিশুর মাথা

প্রকাশিত:

ছোট্ট আশা। সবেমাত্র ১৮ মাস বয়স হয়েছিল তার। পৃথিবীর রং-রূপ ভালোভাবে বোঝার আগেই নির্বাচনী সহিংসতার বলী হয়ে পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে হলো তাকে। পৃথিবীর সবচেয়ে নিরাপদ স্থান মায়ের কোলে থেকেও রক্ষা পায়নি তার প্রাণ। পুলিশের নিষ্ঠুর বুলেট ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছে ছোট্ট আশার মাথা। মুহূর্তের মধ্যে প্রাণপ্রদীপ নিভে গেছে তার।

হৃদয়বিদারক এই ঘটনা ঘটেছে ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার বাচোর ইউনিয়নে। নিহত আশা রাণীশংকৈল উপজেলার মিরডাঙ্গী গুচ্ছগ্রাম বাজার এলাকার বাদশাহ মিয়ার মেয়ে।

রাণীশংকৈল উপজেলার অসমাপ্ত তিনটি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় বুধবার, ২৮ জুলাই। এদিন বাচোর ইউনিয়নের ভাংবাড়ি ভিএফ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোটের ফলাফলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়।

এক পর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা-ধাওয়া শুরু হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়।ঘটনার আকস্মিকতায় পরিস্থিতি সামাল দিতে গুলি ছুঁড়তে বাধ্য হয় পুলিশ। এসময় পুলিশের গুলিতে মায়ের কোলে থাকা অবস্থায় দেড় বছর বয়সী আশার মাথা ছিন্ন-ভিন্ন হয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে ছোট্ট আশা।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ভোট গণনা শেষ হলে বুধবার সন্ধ্যার পর ব্যালট বাক্সসহ নির্বাচন সংক্রান্ত অন্যান্য সরঞ্জাম পুলিশের গাড়িতে তোলার সময় ভোট কেন্দ্র থেকে একটু ধূরে কালুগাঁও মহেষপুর বেলবাজার এলাকায় ভোটের ফলাফল নিয়ে মেম্বার প্রার্থী জলিল ও ফয়জুল ইসলামের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা-ধাওয়া হয়। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে পুলিশ গুলি ছোঁড়ে। তখন শিশুটির মা ঘটনা দেখতে একটু এগিয়ে গেলে মায়ের কোলে থাকা অবস্থায়ই শিশুটি গুলিবিদ্ধ হয়। মাথায় গুলি লাগার সঙ্গে সঙ্গেই তার মৃত্যু হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রানীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, পুলিশের গুলিতে একটি শিশু মারা গেছে। স্থানীয়রা ভোটের ফলাফল আনতে বাধা দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। এসময় পুলিশ বাধ্য হয়ে গুলি চালালে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

সম্পর্কিত সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ

spot_img