20 C
Dhaka

বন্যা কবলিত সিলেটে ডায়রিয়া দেখা দিয়েছে

প্রকাশিত:

সিলেটে গত এক সপ্তাহে মোট ৫৫০ জনের ডায়রিয়া ও অন্যান্য পানিবাহিত রোগ শনাক্ত হয়েছে, যা জেলার বন্যা কবলিত মানুষের দুর্ভোগ বাড়িয়ে দিয়েছে।

সিলেট সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪০০ জন এবং ত্বক ও অন্যান্য রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ১৫০ জন। দিন দিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

বন্যা কবলিত মানুষদের চিকিৎসা সেবা দিতে জেলার ১৩টি উপজেলায় — ডায়রিয়া প্রবণ হিসেবে ঘোষিত — মোট ১৪০টি মেডিকেল টিম পাঠানো হয়েছে।

কানাইঘাট উপজেলায় ১২টি, জৈন্তাপুরে ১১টি, গোয়াইনঘাট, সদর, ফেঞ্চুগঞ্জ ও জকিগঞ্জে ১০টি, বিয়ানীবাজার ও গোলাপগঞ্জে ১৬টি, ওসমানীনগরে নয়টি, দক্ষিণ সুরমায় আটটি এবং বালাগঞ্জ ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় সাতটি করে মেডিকেল টিম পাঠানো হয়েছে। জেলা.

ডেপুটি সিভিল সার্জন জয়শঙ্কর দত্ত বলেন, ‘মানুষ ডায়রিয়া ও অন্যান্য পানিবাহিত রোগে ভুগছে এবং তাদের চিকিৎসা সেবা দিতে আমাদের মেডিক্যাল টিম দিনরাত কাজ করছে।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, ইতিমধ্যেই ওয়ার্ড পর্যায়ে স্বাস্থ্য অভিযান শুরু করা হয়েছে এবং ‘আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে এক পাক্ষিক ধরে প্রতিদিন এ ধরনের স্বাস্থ্য ক্যাম্পেইন চালানোর’।

তিনি বলেন, ‘শহরের বাসিন্দারা বিশুদ্ধ পানীয় জলের অপ্রতুলতার কারণে অনেক দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন এবং আমরা ইতিমধ্যে ১ লাখ ৬০ হাজার পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করেছি।

সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক হিমাংশু লাল রায় বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ১৮৩ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ১৭১।

এছাড়াও, জেলায় মোট পাঁচটি জল পরিশোধন মেশিন – চারটি জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর থেকে এবং একটি রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির – পরিষেবাতে চাপ দেওয়া হয়েছে।

‘প্রতিটি মেশিন ঘণ্টায় ৫০০ লিটার পানি পরিশোধন করতে পারে,’ কর্মকর্তা বলেন।

সম্পর্কিত সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ

spot_img