23 C
Dhaka

বাজারে এলো ওয়ালটনের সাশ্রয়ী মূল্যের দুই ল্যাপটপ

প্রকাশিত:

শিক্ষার্থী ও তরুণদের ক্রয়ক্ষমতার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সাশ্রয়ী মূল্যে প্রিলুড সিরিজের নতুন দুটি মডেলের ল্যাপটপ বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন।

নতুন এই দুটি মডেলের ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে ইন্টেলের শক্তিশালী সিপিউ। আরও রয়েছে দুর্দান্ত গতির র‌্যাম, দীর্ঘ সময় ব্যাকআপ দেয়ার ব্যাটারি, বিগ স্টোরেজসহ দুর্দান্ত সব ফিচার।

শিক্ষার্থী ও তরুণরা যাতে সহজেই কিনতে পারে সেই বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ল্যাপটপ দুটি বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। কনফিগারেশন ও ফিচার বিবেচনায় বর্তমানে বাজারে থাকা ল্যাপটগুলোর মধ্যে প্রিলুড সিরিজের এই ল্যাপটপ দুটিকে অনায়াসেই বাজেট সেরা বলা যায়। খুবই হালকা ও স্লিম হওয়ায় যারা কাজের প্রয়োজনে বেশি ভ্রমণ করেন তাদের জন্য ল্যাপটপ দুটি আদর্শ। প্রয়োজনীয় কাজের পাশাপাশি বিনোদনপ্রেমী ব্যবহারকারীরা সম্পূর্ণ নতুন ও আনকোড়া অভিজ্ঞতা পাবেন এতে।

প্রিলুড এন৪১ প্রো মডেলে ব্যবহৃত হয়েছে ১.১ গিগাহার্জ গতির ইন্টেল সেলেরন এন৪১২০ কোয়াড কোর প্রসেসর। রয়েছে বিল্ট ইন ইন্টেল আলট্রা এইচডি গ্রাফিক্স ৬০০। আর প্রিলুড এন৫০ প্রো মডেলের ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে ১.১ গিগাহার্জ গতির ইন্টেল পেন্টিয়াম এন৫০৩০ কোয়াড কোর প্রসেসর। রয়েছে বিল্ট ইন ইন্টেল আলট্রা এইচডি গ্রাফিক্স ৬০৫।

একটি মডেলের মূল্য ধরা হয়েছে ৩৯ হাজার ৭৫০ টাকা। আরেকটি মডেলের মূল্য ৪১ হাজার ৯৫০ টাকা।

দুটি ল্যাপটপেই রয়েছে ২৬৬৬ মেগাহার্টস গতির ৮ গিগাবাইট ডিডিআর৪ র‌্যাম। রয়েছে ২৫৬ জিবি এমডটটু এসএসডি স্টোরেজ যা ৫১২ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ সাপোর্ট করবে।

ল্যাপটপ দুটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ১৪ ইঞ্চির ফুল এইচডি এলইডি ডিসপ্লে। পর্দার রেজ্যুলেশন ১৯২০ বাই ১০৮০ পিক্সেল। ফলে এতে স্পষ্ট ও প্রাণবন্ত ছবি দেখার অভিজ্ঞতা মিলবে। গেম খেলা, কাজ করা বা মুভি দেখায় পাওয়া যাবে অসাধারণ অনুভূতি। এর ম্যাট ডিসপ্লে প্যানেল আলোর প্রতিফলন রোধ করে চোখকে আরাম দেবে।

দৃষ্টিনন্দন কালো রঙের ল্যাপটপ দুটিতে দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে ৩৬ ওয়াট আওয়ারের স্মার্ট লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি যা একটানা ৫২০ মিনিট পর্যন্ত ব্যাকআপ দিতে পারবে। দুটি বিল্ট ইন দুই ওয়াটের স্পিকারে শোনা যাবে স্পষ্ট শব্দের। রয়েছে এক মেগাপিক্সেলের এইচডি ক্যামেরা ও বিল্ট ইন মাইক্রোফোন। এতে করে অনায়াসেই স্পষ্ট ভিডিও কল ও ভিডিও কনফারেন্স করা যাবে।

ল্যাপটপ দুটিতে রয়েছে মাল্টি ল্যাঙ্গুয়েজ আইসোলেটেড কিবোর্ড ও স্ক্রলিং ফাংশনসহ বিল্ট ইন ক্লিক প্যাড। ইংরেজির পাশাপাশি বিল্ট ইন বাংলা ফন্ট ও বিজয় বাংলা সফটওয়্যার থাকায় যে কেউ খুব সহজেই এই ল্যাপটপে দ্রুত ও মসৃণভাবে বাংলা লিখতে পারবেন।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img