23 C
Dhaka

বিএনপির আন্দোলনের পতন ধ্বনি শুনতে পাচ্ছি: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:

১০ ডিসেম্বরের সমাবেশ ঘিরে সরকার পতনের নয়, বিএনপির আন্দোলনের পতন ধ্বনি শুনতে পাচ্ছি বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, বিএনপি পালাবার পথ পাবে না। আওয়ামী লীগের নেতারা কেউ পালায় না। প্রয়োজনে জেলে যাবে, তবুও পালানোর পথ খুঁজে না আওয়ামী লীগ। তাদের (বিএনপি) নেতা মুচলেকা দিয়ে কাপুরুষের মতো পালিয়েছে।

শুক্রবার (৪ নভেম্বর) রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশের (আইইবি) মিলনায়তনে আয়োজিত দুই দিনব্যাপী আওয়ামী লীগের চতুর্থ শিল্প বিপ্লব নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার বিএনপির আন্দোলনে বাধা দেবে না। প্রধানমন্ত্রী আন্দোলনের বিরুদ্ধে বলেননি। তিনি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বলেছেন, বিরোধী দল আন্দোলন করছে, করুক বাধা দেবে না। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বাধা দেওয়া হচ্ছে না এবং হবে না। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা আমরা মেনে আন্দোলন করতে দিচ্ছি।

প্রধানমন্ত্রী যে বাড়াবাড়ির কথা বলেছেন, তার একটি ব্যাখ্যাও দিয়েছেন ওবায়দুল কাদের। বলেন, দণ্ড স্থগিত করে বাসায় রাখা শেখ হাসিনার উদারতা।

সংবিধান দিবস প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, আজ ৫০তম সংবিধান দিবস। আমাদের সংবিধান এতো ভাল যে, সারা দুনিয়ায় প্রশংসিত সংবিধান। প্রজাতন্ত্রের মালিক জনগণ। সামরিক আমলে আর্টিকেল ৭ কচুকাটা হয়েছে। এরপরও বাংলাদেশের সংবিধান সেরা।

তিনি বলেন, এখন প্রধানমন্ত্রী বলছেন আপনারা (বিএনপি) আন্দোলনের নামে বাড়াবাড়ি করছেন। আপনাদের নেত্রীকে তো আপনারা জেল থেকে মুক্ত করেননি। খালেদা জিয়ার নামে কে মামলা করেছে? তত্ত্বাবধায়ক সরকার কার লোক? বেগম জিয়ার লোক। তারা মামলা দিয়েছে। আসলে তারা লাফায় কেন সেটাও তো বুঝি না। দুই প্রধান নেতাই দণ্ডিত আসামি। একজন মুচলেকা দিয়েছে জীবনেও রাজনীতি করবে না। মুচলেকা দিয়েও কাপুরুষের মতো দেশ ছেড়ে পালিয়েছে।

বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতি প্রতিষ্ঠা থেকেই করে আসছে মন্তব্য করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী কী প্রতিহিংসার রাজনীতি করবে? প্রতিহিংসা তো তাদের, যারা ৭১-এর প্রতিশোধ ৭৫ সালে নেয়। পনেরই আগস্ট ঘটিয়েছিল যারা, তারাই প্রতিহিংসা পরায়ণ। তাদের থেকে প্রতিহিংসা কার বেশি?

গতকাল ত নভেম্বর ছিল জেল হত্যা দিবস। জেলে যাদের হত্যা করা করা হয়েছে প্রতিহিংসার বশে করা হয়েছে বলে ইঙ্গিত দেন ওবায়দুল কাদের। শেখ হাসিনাকে প্রাইম টার্গেট করে ২১ আগস্ট ঘটানো হয়েছিল। যারা প্রতিহিংসা পরায়ণ তারাই এ কাজ করেছে বলে বুঝিয়েছেন তিনি। মন্ত্রী বলেন, প্রতিহিংসা পরায়ণ বাংলাদেশে আর কে?

দুই দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ কমিটির চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য প্রফেসর ড. হোসেন মনসুর। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর।

প্রথম দিনের সম্মেলনে প্রথম মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

সম্পর্কিত সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ

spot_img