23 C
Dhaka

বোনকে  রক্ষা করতে গিয়ে  মারধরের শিকার ভাই (ভিডিও)

প্রকাশিত:

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজার সদরের খুরুশকূলে বোনকে  ইভটিজিংয়ে বাধা দেওয়ায় ‘তিন যুবকের  নেতৃত্বে’ ভাইকে  বেদড়ক মারধরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

মারধরের শিকার যুবকের দাবি, ইভটিজিংয়ের শিকার তরুণী তার বোন। তাকে ( ভূক্তভোগী তরুণী) বখাটেদের হাত থেকে রক্ষা করতে গিয়ে তিনি হামলার শিকার হয়েছেন।

এ ঘটনায় রোববার বেলা সাড়ে  ১১ টার দিকে  অভিযুক্ত ২ যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটকরা হলেন, খুরুশকুল ইউনিয়নের মনুপাড়ার বাসিন্দা মো. রায়হান ও কুলিয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা মো. আরমান। তাদের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সেলিম উদ্দিন।

ওসি তদন্ত সেলিম উদ্দিন জানান,  ভুক্তভোগী তরুণী ও ছেলেসহ তাদের মা থানায় এসে অভিযোগ দেয়ার পরপরই  আমরা অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তদের মধ্যে দুজনকে আটক করতে সক্ষম হই। 

হামলাকারি যুবকদের মধ্যে মো. জামাল নামে আরেকজন পলাতক রয়েছে এবং তাকে ধরতে পুলিশের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সেলিম উদ্দিন।

শনিবার বিকালে কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকূল ইউনিয়নের আশ্রয়ণ প্রকল্প এলাকায় ওই হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানান খুরুশকূল ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য নাছির উদ্দিন। হামলার শিকার যুবক আব্দুল মোনাফ ও ভূক্তভোগী তরুণী খূরুশকূল আশ্রয়ণ প্রকল্প এলাকার বাসিন্দা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়,  বোরকা পরিহিত এক তরুণীকে খালি গায়ে জড়িয়ে যুবককে জনৈক যুবক গাছের ডাল জাতীয় কিছু একটা নিয়ে বেদড়ক মারধর করছে। তারপরও তরুণীকে জড়িয়ে ধরে রয়েছে মারধরের শিকার যুবকটি। মাঝে মধ্যে যুবকটিকে লাথি মারছে হামলাকারি। পরে খালি গায়ের আরেক যুবক এসে কিল-ঘুষি ও লাথি মারছে তরুণীকে জড়িয়ে যুবকের উপর। ঘটনাস্থলে ঘুরাঘুরি করে তৃতীয় আরেক যুবক সহায়তা করছিল হামলাকারিদের।

এসময় ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে হেটে যাওয়া বয়স্ক জনৈক ব্যক্তির দৃষ্টি আকর্ষণ করে ভূক্তভোগী তরুণী সহায়তা চাইলেও হামলাকারিদের ভয়ে কোন ধরণের সাড়া দেননি। 

ঘটনার সময় সেখানে আশপাশে উপস্থিত থাকা কেউ একজন মারধরের ঘটনার ভিডিওটি ধারণ করেন। পরে সেটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। শনিবার রাতে তরুণীকে জড়িয়ে ধরা যুবককে মারধর করার এ ধরণের একটি ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকে সর্বত্রই সমালোচনার ঝড় উঠে। মারধরের শিকার যুবক সম্পর্কে ভূক্তভোগী তরুণীর ভাই বলে দাবি করলেও স্থানীয়রা ভিন্ন তথ্য দিয়েছেন বলে জানান স্থানীয় ইউপি সদস্য নাছির উদ্দিন।

স্থানীয়দের বরাতে নাছির বলেন, ভিডিওতে হামলায় খালি গায়ে অংশ নেওয়া যুবকের সঙ্গে ভূক্তভোগী তরুণীর মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে সম্পর্ক ভেঙ্গে যায়। পরবর্তীতে ওই তরুণীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে ভিডিওতে মারধরের শিকার যুবকের। এ নিয়ে তরুণীর বর্তমান ও সাবেক প্রেমিকের মধ্যে তিক্ততার সৃষ্টি হয়।

এর জের ধরে গত বুধবার ( ৮ জুন ) সাবেক প্রেমিককে মারধর করে বর্তমান প্রেমিক। পরে গত বৃহস্পতিবার বর্তমান প্রেমিককে মারধর করে সাবেক প্রেমিক ও তার লোকজন। এ নিয়ে বর্তমান প্রেমিক থানায় অভিযোগ করে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য বলেন,  শনিবার (১১ জুন) বিকালে খুরুশকূল আশ্রয়ণ প্রকল্পের বেড়িবাঁধ এলাকায় ভূক্তভোগী তরুণীকে একা পেয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করে সাবেক প্রেমিক ও তার সহযোগীরা। এক পর্যায়ে উত্যক্তের মাত্রা সীমা অতিক্রম করে। এ ঘটনা আশ্রয়ণ প্রকল্প থেকে লক্ষ্য করেন বর্তমান প্রেমিক। পরে সে ( বর্তমান প্রেমিক) এসে বাধা দিলে সাবেক প্রেমিকের নেতৃত্বে তিন যুবক বেদড়ক মারধর করে।  একই তথ্য জানিয়েছেন খুরুশকূল ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান সিদ্দিকী।

শাহজাহান বলেন, তিনি পারিবারিক কাজে ঢাকায় অবস্থান করছেন। ঘটনাটি শোনার পর পুলিশকে অবহিত করেছেন।

ঘটনার ব্যাপারে মারধরের শিকার আব্দুল মোনাফ বলেন, ইভটিজিংয়ের শিকার তরুণী তার বোন। খুরুশকূল আশ্রয়ণ প্রকল্পে তাদের ফ্ল্যাট রয়েছে। তার বোন মামার বাড়ী যাওয়ার পথে প্রকল্পের বেড়িবাঁধ এলাকায় পৌঁছলে জামাল, রায়হান ও আরমান নামের তিন যুবক পথ আটকে নোংরা ভাষায় কথা বলে।

বাধা পেয়ে আমার বোন ফিরে আসতে চাইলে বখাটেরা বার বার পথ আটকাচ্ছিল। প্রকল্প থেকে ঘটনাটি দেখে আমি দৌঁড়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। অমূলক আচরণ করার কারণ জানতে চাইলে বখাটেরা লাঠি দিয়ে আমার বোনকে আঘাত করতে থাকে। এক পর্যায়ে বোনকে বাঁচাতে আমি জড়িয়ে ধরি।  ভূক্তভোগী এ যুবক অভিযোগ করে বলেন, হামলাকারিরা এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে কিল-ঘুষি ও লাথির পাশাপাশি লাঠি দিয়ে বেদড়ক মারধর চালিয়েছে।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img