20 C
Dhaka

মুক্তির দ্বিতীয় সপ্তাহেও ১০৭ প্রেক্ষাগৃহে ‘দিন : দ্য ডে’ (ভিডিও)

প্রকাশিত:

করোনার কারণে দীর্ঘ খরার পর এবারের ঈদুল আযহায় মুক্তি পেয়েছে একসঙ্গে তিনটি ছবি। অনন্ত জলিলের দিন : দ্য ডে, শরিফুল রাজের পরাণ এবং জিয়াউল রোশানের সাইকো। তিনটি সিনেমার বাজেট যোগ করে ১০০ কোটি ছাড়িয়ে গেছে যা ঢাকাই চলচ্চিত্রের ইতিহাস রীতিমতো বিরল এক রেকর্ড।

এবারের ঈদে মুক্তি পাওয়া তিনটি ছবির মধ্যে শুধু ‘দিন : দ্য ডে’ ছবির বাজেটই ১০০ কোটি টাকা। শুধু বাজেটেই এগিয়ে নেই ‘দিন : দ্য ডে’, সবচেয়ে বেশি সংখ্যক প্রেক্ষাগৃহেও মুক্তি পেয়েছে ঢাকাই চলচ্চিত্রের তুমুল জনপ্রিয় জুটি ও সফল তারকা দম্পতি অনন্ত জলিল-বর্ষা অভিনীত আন্তর্জাতিক মানের ছবিটি।

১০ জুলাই ঈদুল আযহার দিনে সারাদেশের ১০৭টি সিনেমা হলে একযোগে মুক্তি পায় দিন: দ্য ডে। অন্যদিকে অনন্য মামুন পরিচালিত রোশান-পূজা চেরি জুটির ‘সাইকো’ মুক্তি পায় ১৭টি প্রেক্ষাগৃহে। একই দিন (১০ জুলাই) শরিফুল রাজ, বিদ্যা সিনহা মিম ও ইয়াশ রোহান অভিনীত ত্রিভুজ প্রেমের গল্পে রায়হান রাফি পরিচালিত ‘পরাণ’ ছবিটি মুক্তি পায় ১১টি প্রেক্ষাগৃহে।

‘দিন: দ্য ডে’ ছবিটি তৈরি করেছেন ইরানি পরিচালক মুর্তজা অতাশ জমজম। বাংলাদেশ ছাড়াও ইরান, তুরস্ক ও আফগানিস্তানে ছবিটির শুটিং হয়েছে। ইরানের মুর্তজা অতাশ জমজম এবং বাংলাদেশের অনন্ত জলিলের মুনসুন ফিল্মসের ব্যানারে নির্মিত হয়েছে ছবিটি। অনন্ত জলিল, বর্ষা ছাড়াও ছবিটিতে অভিনয় করেছেন ইরান ও লেবাননের অভিনয়শিল্পীরা। ছবিটিতে অনন্ত জলিল আন্তর্জাতিক সংস্থার একজন পুলিশ কর্মকর্তার চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

বিশাল বাজেট আর নানামুখী প্রচারণার কারণে শুরু থেকেই আলোচনায় রয়েছে দিন : দ্য ডে। ছবিটির বাংলাদেশ অংশের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান মুনসুন ফিল্মস সূত্রে জানা গেছে, মুক্তির দ্বিতীয় সপ্তাহেও হল সংখ্যা একই থাকছে। অর্থাৎ ১০৭টি প্রেক্ষাগৃহেই ছবিটি উপভোগের সুযোগ পাবেন দর্শকরা। সেগুলো হলো:

মধুমিতা (ঢাকা), স্টার সিনেপ্লেক্স (বসুন্ধরা, মিরপুর, সীমান্ত স্কয়ার, এসকেএস, সামরিক জাদুঘর), ব্লকবাস্টার সিনেমাস (ঢাকা), শ্যামলী (ঢাকা), লায়ন সিনেমাস (কেরাণীগঞ্জ), চিত্রমহল (ঢাকা), আনন্দ (ঢাকা), বিজিবি অডিটরিয়াম (ঢাকা), গীত (ঢাকা), সেনা (ঢাকা), নিউ গুলশান (জিঞ্জিরা)।

নিউ মেট্রো (নারায়ণগঞ্জ), সিনেস্কোপ (নারায়ণগঞ্জ), চাঁদমহল (নারায়ণগঞ্জ), পান্না (মুন্সীগঞ্জ), বর্ষা (জয়দেবপুর), সেনা (সাভার), চন্দ্রিমা (শ্রীপুর)।

মনিহার (যশোর), লিবার্টি (খুলনা), সংগীতা (খুলনা), সিলভার স্ক্রিণ (চট্টগ্রাম), সুগন্ধা (চট্টগ্রাম), সিনেমা প্যালেস (চট্টগ্রাম), শাপলা (রংপুর), মধুবন (বগুড়া), রূপকথা (পাবনা), ছায়াবাণী (ময়মনসিংহ), নন্দিতা (সিলেট), মর্ডাণ (দিনাজপুর), মধুমতি (ভৈরব)।

মালঞ্চ (টাঙ্গাইল), বনলতা (ফরিদপুর), মিলন (মাদারীপুর), অভিরুচি (বরিশাল), আলোছায়া (শরীয়তপুর), রূপসী (ভোলা), সাধনা (রাজবাড়ি), মুন (ময়মনসিংহ), রাজিয়া (টাঙ্গাইল), শাহীন, (টাঙ্গাইল), মল্লিকা (সিরাজগঞ্জ), সংগীতা (সাতক্ষীরা), ময়ূরী (যশোর), তুলি (যশোর)।

সোনালী (মাদারীপুর), বৈশাখী (রাজবাড়ী), সবুজ (ভোলা), শঙ্খমহল (খুলনা), মমতা (নরসিংদী), ছন্দা (নরসিংদী), চলন্তিকা (নারায়ণগঞ্জ), সোহাগ (নরসিংদী), রাজ (কিশোরগঞ্জ), সুমন (কিশোরগঞ্জ), মনিকা (হবিগঞ্জ), ভিক্টরিয়া (মৌলভীবাজার), শ্যামলী (রংপুর), তামান্না (নীলফামারি)।

প্রিয়া (ময়মনসিংহ), শতাব্দী (শেরপুর), রাজমহল (চাপাইনবাবগঞ্জ), মনিহার (মাধবপুর), পূবার্শা (বগুড়া), মম ইন (বগুড়া), রুটস (সিরাজগঞ্জ), ফাইভ স্টার (নাটোর), বুলবুল টকিজ (নওগাঁ), মিতালী (নওগাঁ), আনন্দ (নাটোর), আশা (জামালপুর), চিত্রাবাণী (গোপালগঞ্জ), লক্ষ্মী (সাতক্ষীরা)।

বৈশাখী (বরিশাল), আয়না (জয়পুরহাট), পৃথিবী (জয়পুরহাট), রিতা (লক্ষ্মীপুর), ক্লিওপেট্রা (বগুড়া), ছন্দা (পটিয়া), তাজ সিনেমা (গাইবান্ধা), রুনা (নরসিংদী), স্বপ্নপূরী (শ্রীনগর), কাজলি (চাঁদপুর), পালকি (কুমিল্লা)।

প্রিয়া (ঝিনাইদহ), কথাচিত্র (কিশোরগঞ্জ), মৌচাক (পাবনা), রজণী (চন্দ্রা), ঝংকার (জামালপুর), মনামী (কুষ্টিয়া), দীপাঞ্চল (কুড়িগ্রাম), নবীন (ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া), মানষী (কুড়িগ্রাম), অবকাশ (দিনাজপুর), জয় সিনেমা (মৌলভীবাজার), চিত্রাপুরী (ময়মনসিংহ), অবসর (দিনাজপুর), অন্তর (ময়মনসিংহ) ও পলাশ (কুমিল্লা)।

সম্পর্কিত সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ

spot_img