28 C
Dhaka

রাজ-পরীর রাজ্যের দ্বিতীয় জন্মমাস পালন

প্রকাশিত:

১০ অক্টোবর। দুই মাস আগে ঠিক এই তারিখেই তারকা দম্পতি পরীমনি আর শরিফুল রাজের ঘর আলো করতে জন্ম নেয় তাদের প্রথম সন্তান। বাবা রাজের সঙ্গে মিলিয়ে ছেলের নাম রাখা হয় রাজ্য।

রাজ্যের মা হয়ে পরীমনির অশান্ত জীবনে যেন নেমে আসে শান্তির পরশ। আনন্দে আত্মহারা হন পরীমনি আর রাজ দুজনই। রাজ্যকে নিয়ে সময় পেলেই আনেন্দে মেতে ওঠেন তারা। প্রায়ই সেসব আনন্দের মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দী করে পরীমনি তার ফেসবুকে পোস্ট করে ভক্তদের সঙ্গে নিজের ব্যক্তিগত জীবনের আনন্দ ভাগাভাগি করে নেন।

পরীর কোলে রাজ্য

তারই ধারাবাহিকতায় এবার ছেলের দ্বিতীয় মাস বেশ ঘটা করে উদযাপনের ছবি, ভিডিও পরীমনি পোস্ট করেছেন তার ফেসবুকে।

বুধবার, ১২ অক্টোবর ফেসবুকে পরীমনি তার ছেলের দ্বিতীয় জন্মমাস উদযাপনের একটি ভিডিও পোস্ট করেন। পাশাপাশি তিনি লেখেন, রাজ্যের দুই মাস পূর্ণ হলো। আলহামদুলিল্লাহ।

ভিডিওতে রাজ-পরী-রাজ্য ছাড়াও আনন্দে মেতে উঠতে দেখা গেছে মা-বাবা হারা পরীমনির উকিল বাবা নির্মাতা রেদওয়ান রনি ও পরীমনি যাকে মা বলে পরিচয় দেন সেই আলোচিত নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরীকে।

এছাড়া এর আগে ১১ অক্টোবর বেলা ৩টা ৪১ মিনিটে রাজের তোলা একটি ছবিও পোস্ট করেন পরীমনি। ছবিতে ছেলেকে কোলে নিয়ে থাকতে দেখা যায় পরীমনিকে। সেখানে এই নায়িকা লেখেন, আমাদের ছেলের দুই মাস হয়ে গেলো। আলহামদুলিল্লাহ। হ্যাপি টু মান্থস বাজান।

সাধারণত বছরে একবার জন্মদিন পালন করে থাকে সবাই। কিন্তু রাজ্যকে পেয়ে রাজ-পরী দম্পতি এতটাই আনন্দিত যে তারা ঘোষণা দিয়েছেন, প্রতি মাসেই ছেলের জন্মদিন উদযাপন করবেন।

এ বিষয়ে পরীমনির ভাষ্য, আমি ও রাজ সিদ্ধান্ত নিয়েছি প্রত্যেক মাসে একবার করে ছেলের জন্মদিন পালন করবো। এভাবে যখন একবছর পূর্ণ হবে তখন বড় করে জন্মদিন উদযাপন করার পরিকল্পনা রয়েছে।

পরীমনি আরও বলেন, (প্রতি মাসের ১০ তারিখে) আমরা দুই পরিবারের সদস্যরা (রাজ ও পরী) বাসায় একত্রিত হবো। রান্নাবান্না হবে। (সবাই মিলে) খাওয়া-দাওয়া করবো। মূলত এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার কারণ হলো- (ভবিষ্যতে) আমরা তো এত সময় না-ও পেতে পারি ব্যস্ততার কারণে। তাই (জন্মমাস উদযাপনের মধ্য দিয়ে) একটা গেট-টুগেদারও হয়ে যাবে।

এবারই প্রথম নয়, গত ১০ সেপ্টেম্বরও ছেলের প্রথম জন্মমাস উদযাপন করেছিলেন পরী ও রাজ। সেদিন নিজের ফেসবুকে ছবি পোস্ট করে পরীমনি লিখেছিলেন, আমাদের ছেলের এক মাস হয়ে গেলো। আলহামদুলিল্লাহ। হ্যাপি ওয়ান মান্থ বাজান। স্বামী শরিফুল রাজকে ধন্যবাদ জানিয়ে পরীমনি আরও লিখেছিলেন, থ্যাংক ইউ রাজ।

সবকিছু মিলিয়ে গত ১০ আগস্ট রাজধানীর একটি হাসপাতালে ছেলে জন্ম দেয়ার পর থেকে রাজ্যকে কেন্দ্র করেই ঘুরপাক খাচ্ছে পরীর পৃথিবী।

সম্পর্কিত সংবাদ

spot_img

সর্বশেষ সংবাদ

spot_img