31 C
Dhaka

র‌্যাব-পুলিশ পরিচয়ে অভিনব প্রতারণা, আটক ১

প্রকাশিত:

ভুয়া র‌্যাব ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে একজন প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০।

প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই র‌্যাব দেশের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার লক্ষে সব ধরনের অপরাধীকে আটক করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। এছাড়া প্রতারণা ও জালিয়াতি দমন র‌্যাবের একটি গুরুত্বপূর্ণ ও চলমান অভিযান। র‌্যাবের এই অভিযান দেশের সব মহলে প্রশংসিত হয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ভুয়া র‌্যাব ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে ১ জন প্রতারককে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির নাম ইলিয়াস (৫১) বলে জানা যায়। এসময় তার কাছ থেকে ১টি মোবাইল ফোন ও প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেওয়া নগদ ১০,৫০০ (দশ হাজার পাঁচশত) টাকা উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামী সম্প্রতি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ফারুক নামের এক ব্যক্তিকে জানায় যে, সে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। ঢাকা থেকে মাদারীপুর বদলী হওয়ার কারণে তার বাসার মালামাল স্থানান্তর করতে হবে। এজন্য সে (প্রতারক ইলিয়াস) একটি পিকআপ ১২,০০০ টাকার বিনিময়ে ভাড়া করে।

অতঃপর প্রতারক ইলিয়াস সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ড এর শ্যামলী কাউন্টারের সামনে যেতে বলে ভিকটিম ফারুককে। তার কথামতো নির্ধারিত স্থানে গেলে প্রতারক ইলিয়াস চেক ভাঙ্গিয়ে টাকা ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভিকটিম ফারুকের কাছ থেকে লেবারের মজুরি দেওয়ার কথা বলে ২৬,০০০ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

জিজ্ঞাসাবাদে প্রতারক ইলিয়াস জানায়, সে বিভিন্ন সময়ে পিকআপ, মিনি ট্রাক ও ট্রাক চালকদের আছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নিজেকে পুলিশ, র‌্যাব ও বাংলাদেশ সেনা বহিনীর ভুয়া ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয় দিতো। অতঃপর মালামাল পরিবহনের উদ্দেশ্যে পিকআপ, মিনি ট্রাক ও ট্রাক ভাড়া করে তার সুবিধাজনক স্থানে ডেকে এনে চালকের কাছ থেকে টাকা ও মোবাইল ফোন কৌশলে হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে যেতো।

গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৩টি প্রতারণা ও ২টি মাদক মামলাসহ মোট ৫টি মামলা রয়েছে বলে জানা যায়।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় নিজেই বাদী হয়ে নিয়মিত মামলা রুজু করেছেন ভিকটিম মো. ফারুক মাতুব্বর (৪৭)।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img