31 C
Dhaka

শরীয়তপুরে পাউবো কর্মচারীর ওপর সাংবাদিকের হামলা

প্রকাশিত:

শরীয়তপুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কার্য সহকারী বেলায়েত হোসেনের ওপর হামলাকারী সাংবাদিক ইস্রাফিল বেপারী ও সুমন হাওলাদারসহ অন্যান্য হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার, ১৩ অক্টোবর পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের সামনে পানি উন্নয়ন বোর্ড শরীয়তপুরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আহত বেলায়েত হোসেনের পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনদের আয়োজনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী এস.এম আহসান হাবীব, পাউবোর উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও মামলার বাদী মো. সেলিম মোল্লা, আহত বেলায়েতের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই সিকদারসহ পানি উন্নয়ন বোর্ড শরীয়তপুরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং বেলায়েতের পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়-স্বজনরা।

মানববন্ধনে বেলায়েতের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই সিকদার বলেন, আমার ছেলের সঙ্গে ইস্রাফিল ও সুমনের কোনো বিরোধ ছিল না। শুনেছি, সুমন বালু সাপ্লাই দিতে চেয়েছিল আর ইশ্রাফিল চাঁদা বাবদ ৫০ হাজার টাকা দাবি করেছিল। এগুলো না পেয়ে ক্ষুদ্ধ হয়ে তারা আমার ছেলেকে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে। আমার ছেলের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আমি দ্রুত আসামীদের গ্রেপ্তার ও বিচার চাই।

মানববন্ধনে শরীয়তপুর পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী এস.এম আহসান হাবীব বলেন, শরীয়তপুর সদরের রাজগঞ্জ এলাকায় আমাদের একটি প্রকল্পের কাজ চলছিল। সেখানে গিয়ে সাংবাদিক বিএম ইস্রাফিল ও তার সহযোগী সুমন হাওলাদার প্রথমে চাঁদা চায়। পরে সরকারি কাজে বাধা দেয়। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে বেলায়েতকে মারধর করে তারা। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আমরা দ্রুত এ ঘটনার সঠিক বিচার চাই।

শরীয়তপুর পাউবো অফিস ও মামলার এজাহার সূত্র জানা গেছে, প্রায় ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে শরীয়তপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে কীর্তিনাশা নদীর ডান ও বাম তীর রক্ষার প্রকল্পের কাজ গত প্রায় ৬ মাস ধরে চলছে। রাজগঞ্জ এলাকায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জামিল ইকবাল কনস্ট্রাকশন লিমিটেড বালুভর্তি জিওব্যাগ ডাম্পিং করার কাজ করছে।

গত ৯ অক্টোবর রবিবার সেখানে দায়িত্ব পালন করছিলেন বেলায়েত। বেলা ৩টার দিকে সেখানে যান সাংবাদিক বিএম ইস্রাফিল ও তার সহযোগী সুমনসহ ৪ থেকে ৫ জন। জিওব্যাগে বালুর পরিমাণ ও নদীতে ডাম্পিং করার বিষয়ে তারা খোঁজখবর নেন। এসময় বেলায়েতের কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন সাংবাদিক বিএম ইস্রাফিল।

এ নিয়ে বেলায়েতের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে বেলায়েতকে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেয়া হয়। এ ঘটনায় দুজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামি করে পাউবোর উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. সেলিম মোল্লা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে পালং মডেল থানার ওসি আক্তার হোসেন বলেন, সরকারি কাজে বাধা, চাঁদা দাবি ও শরীয়তপুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মচারীকে মারধর করার ঘটনায় দুজনের নাম উল্লেখসহ আরও অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img