27 C
Dhaka

সেই ফাতেমা পেল ৫ লাখ টাকা, অ্যাকাউন্টে জমা ৮ লাখ

প্রকাশিত:

ময়মনসিংহের ত্রিশালে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত গৃহবধূর পেট ফেটে অলৌকিকভাবে জন্ম নেওয়া শিশু ফাতেমার পরিবারকে চেকের মাধ্যমে ৫ লাখ টাকা দিয়েছে সড়ক দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য গঠিত ট্রাস্টি বোর্ড।

সোমবার ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে এই চেক হস্তান্তর করা হয়। মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট ২০২২) এফিডেভিট আকারে ৫ লাখ টাকা দেওয়া সংক্রান্ত প্রতিবেদন হাইকোর্টে দাখিল করা হয়েছে।

অপরদিকে শিশু ফাতেমার সাহায্যের জন্য সোনালী ব্যাংক ত্রিশাল শাখায় খোলা হিসাব নম্বরে মোট ৮ লাখ টাকা জমা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

গত ৭ আগস্ট ময়মনসিংহের ত্রিশালে সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তঃসত্ত্বা মায়ের ট্রাকের চাপায় পেট ফেটে অলৌকিকভাবে জন্ম নেওয়া শিশুটির পরিবারকে এক মাসের মধ্যে ৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। সড়ক দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য গঠিত ট্রাস্টি বোর্ডকে এই টাকা দিতে বলা হয়। বিচারপতি খিজির আহমেদ চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত ১৬ জুলাই ময়মনসিংহের ত্রিশালে কোর্ট ভবন এলাকায় ট্রাকচাপায় অন্তঃসত্ত্বা নারীসহ একই পরিবারের তিনজন নিহত হন। এ সময় ওই নারীর পেটে থাকা নবজাতক ট্রাকের চাপে পেট ফেটে সড়কেই প্রসব হয়। অনেকটা অলৌকিকভাবে বেঁচে যায় শিশুটি। বর্তমানে শিশুটি ঢাকার একটি শিশু নিবাসে আছে। এ ঘটনায় অলৌকিকভাবে বেঁচে যাওয়া শিশুর দেখাশোনা ও ভবিষ্যতে তার ক্ষতিপূরণের বিষয়ে স্বপ্রণোদিত আদেশ দেওয়ার আবেদন করলে রিট করার পরামর্শ দেন হাইকোর্ট।

শিশু ফাতেমার দাদা মোস্তাফিজুর রহমান বাবলু বলেন, ময়মনসিংহ ট্রাস্ট্রি বোর্ডে ৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ এসেছে। ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার আমাকে ফোন করে জানিয়েছেন। আর ঢাকায় শিশু নিবাসে আমার নাতনি ভালো আছে। প্রতি সপ্তাহে আমি তাকে দেখতে যাই।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আক্তারুজ্জামান বলেন, ময়মনসিংহ ট্রাস্ট্রি বোর্ড সভাপতি ও ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মহোদয় জাহাঙ্গীর দম্পতির অলৌকিকভাবে বেঁচে যাওয়া শিশুটি ক্ষতিপূরণ হিসেবে হাইকোর্টের আদেশের ৫ লাখ টাকার চেক পেয়েছি। ফাতেমার সাহায্যের জন্য সোনালী ব্যাংক ত্রিশাল শাখায় খোলা হিসাব নম্বরে মোট ৮ লাখ টাকা জমা হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img