31 C
Dhaka

স্ট্যাম্পে জোরপূর্বক স্বাক্ষর নিয়ে বাড়িছাড়া করা হয় তাদের

প্রকাশিত:

ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে প্রতিপক্ষের দাপটে দীর্ঘদিন থেকে বাড়িছাড়া এক অসহায় পরিবার। ভুক্তভোগী পরিবার এর প্রতিকার পেতে আদালতে মামলা করলেও মামলার দীর্ঘসূত্রতার কারণে পরিবারের লোকজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করতে হচ্ছে।

ভুক্তভোগী পরিবার ও মামলা সূত্রে জানা যায়, ঘোড়াঘাট পৌরসভাধীন জোলাপাড়া এলাকার মৃত আছাদ মন্ডলের ছেলে আজাহার মন্ডল (৪১) এর সাথে প্রতিপক্ষের লোকজনের দীর্ঘদিন থেকে বসতবাড়ীর ভিটা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

এমতাবস্থায় গত ২৪ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে একই এলাকার মো. জিম (২৫) এর পিতা মটুক মিয়ার মৃত্যু হয়। এরই জেরে পরের দিন জিমসহ অপর প্রতিপক্ষ একই এলাকার মৃত ইব্রাহিম আলীর ছেলে ইউনুস আলী (৫৩) আলীর নেতৃত্বে মৃত সাহাদত হোসেনের ছেলে ফারুক হোসেন (৪১), আনোয়ার হোসেন (৪৫) ও খালেক মিয়া (৪৯), ইউনুস আলীর ছেলে রিপন মিয়া (৩১), গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামের লোকমান হোসেনের ছেলে রাজু মিয়া (৩১) ও মান্না মিয়া (৩৮) লাঠি ও দেশীয় অস্ত্রে সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মামলার বাদীর বাড়িতে এসে তার স্ত্রী, ভাগ্নি ও তাকে কিল-ঘুষি ও এলোপাতাড়িভাবে মারধর করে বাড়িতে থাকা গবাদিপশু, আসবাবপত্র ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

পরে প্রতিপক্ষের লোকজন আজাহার মন্ডল, তার ভাই, বোন ও মাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ফাঁকা নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করতে বলে। তা নাহলে মৃত মটুক মিয়াকে মেরে ফেলার দায়ে হত্যা মামলার হুমকি দেয়। এ সময় তারা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করে দিলে প্রতিপক্ষগণ আজাহার আলীর বাড়িঘর ভাঙচুর করে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে দেয়।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আজাহার মন্ডল কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, এ ঘটনায় গত ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে দিনাজপুর বিজ্ঞ আদালতে মামলা করলে এতদিনেও মামলা শেষ না হওয়ায় অসহায় হয়ে পড়েছি। পরিবারের লোকজন নিয়ে অন্যের বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছি। বর্তমানে মামলাটি আদালতের নির্দেশে তদন্তকারী সংস্থা সিআইডি তদন্ত করছে। এ সময় তিনি ন্যায় বিচারের জন্য সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি অনুরোধ জানান।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img