28 C
Dhaka

স্ত্রীর সহায়তায় দফায় দফায় ধ-র্ষ-ণ ও ছবি ধারণ, অতঃপর..

প্রকাশিত:

স্ত্রীর সহযোগিতা নিয়ে প্রতিবেশীর ১২ বছর বয়সী মেয়েকে দফায় দফায় ধ-র্ষ-ণে-র অভিযোগে মামলা হয়েছে মোঃ মহিউদ্দিন হাওলাদার (৫০) নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে বাগেরহাট জেলার কচুয়া উপজেলার দোবাড়িয়া গ্রামে।

শুধু তাই নয়, মহিউদ্দিন ও তার স্ত্রী সখী বেগম দুজন মিলে ভিকটিমকে জামা কিনে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে তাদের ঘরে নিয়ে খাটের ওপর প্রথম ধ-র্ষ-ণ করেন। সেসময় কৌশলে ছবি তুলে রাখেন সখী বেগম। পরে ধ-র্ষ-ণে-র সেই ছবি ফাঁস করার ভয় দেখিয়ে খুলনার একটি বাড়িতে নিয়ে তিনজন মিলে ভিকটিমকে ফের আরেক দফায় ধ-র্ষ-ণ করেন।

ভিকটিম জানিয়েছেন, মহিউদ্দিন তাকে জোরপূর্বক ধ-র্ষ-ণ করে। সেসময় তার স্ত্রী সখী বেগম ধ-র্ষ-ণ দৃশ্যের ছবি তুলে রাখে। পরবর্তী সময়ে এক রাতে তাকে ছবি ফাঁস করে দেয়ার ভয় দেখিয়ে খুলনার একটি বাসায় নিয়ে যায়। ওই রাতে মহিউদ্দিন হাওলাদার আবার তাকে ধ-র্ষ-ণ করে। শুধু মহিউদ্দিনই নয়, বাসচালক কালাম সরদার এবং ওই বাড়িতে উপস্থিত আরেককজনও তাকে জোপূর্বক ধ-র্ষ-ণ করে। ধ-র্ষ-ণ করার আগে ধ-র্ষ-ক-রা তাকে জোর করে যৌ-ন উ-ত্তে-জ-ক ওষুধ খাইয়ে নেয়।

এদিকে মেয়েটির দিনমজুর বাবা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ধ-র্ষ-ণ মামলার মূল আসামী দোবারিয়া গ্রামের মোঃ মহিউদ্দিন হাওলাদার এবং তার স্ত্রী সখী বেগম পেশাদার নারী পাচারকারী। সখী বেগম তার ঘরে মেয়ে এনে অবৈধ দে-হ ব্য-ব-সা করান। আর এই অপকর্মে তাকে সব রকমের সহযোগিতা করে তারই স্বামী মহিউদ্দিন হাওলাদার। এলাকার কেউ তাদের অপকর্মের প্রতিবাদ করলে তাদেরকে হুমকি-ধামকি দেন এই দম্পতি। নানাভাবে হয়রানি ও নাজেহাল করতেও ছাড়েন না তারা।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img