30 C
Dhaka

স্বেচ্ছায় একসঙ্গে পৃথিবী ছাড়লেন স্বামী-স্ত্রী

প্রকাশিত:

বছর দেড়েক আগে ফল ব্যবসায়ী ওমর ফারুকের সঙ্গে বিয়ে হয় বিথী খাতুনের। কিন্তু ফারুক দ্বিতীয় বিয়ে করায় তাদের সংসারে কলহ শুরু হয়। তার ওপর বিভিন্ন এনজিও এবং মহাজনদের কাছ থেকে চড়া সুদে প্রায় ১০ লাখ টাকা ঋণ করেন তারা। ঋণের কিস্তি দিতে না পারায় বেশিরভাগ সময় দোকান বন্ধ রেখে বাড়িতেই থাকতেন তারা।

সবকিছু মিলিয়ে হতাশায় ডুবে স্বে-চ্ছা-য় মৃ-ত্যু-কে আলিঙ্গন করেছেন ওমর ফারুক (৩৫) ও তার স্ত্রী বিথী খাতুন। ইঁ-দু-র মা-রা-র গ্যা-স ট্যা-ব-লে-ট খাওয়ার পর তারা দুজনই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন। হৃদয়বিদারক ও মর্মান্তিক এই ঘটনা ঘটেছে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া পৌরসভার হালদার পাড়া এলাকায়।

শুক্রবার, ২৬ আগস্ট সকালে ফারুক ও বিথী দুজন একসঙ্গে ইঁ-দু-র মা-রা-র বি-ষা-ক্ত ট্যা-ব-লে-ট খান। পরে স্বামীর সঙ্গে পায়ে হেঁটেই শ্বশুর বাড়িতে যান বিথী। বাড়িতে ফেরার পর এক পর্যায়ে তারা দুজনই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নিয়ে যান। কিন্তু অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় পরে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু পথেই বিথী খাতুন মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। অন্যদিকে সংকটাপন্ন অবস্থায় রাজশাহীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ফারুককে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। চিকিৎসাধীন অবস্থায় একই দিন স্ত্রীর মতোই পরপারে পাড়ি জমান স্বামী।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img