31 C
Dhaka

হুইসেল শুনেও রেললাইনে কোলের ছেলে ও প্রতিবন্ধী মা, অতঃপর

প্রকাশিত:

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে ট্রেনে কাটা পড়ে আছিরন নেছা (২৮) নামেন মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। দুর্ঘটনায় তার তিন বছরের শিশুপুত্র আরিয়ান মৃধা মারাত্মক আহত হয়েছে।

বুধবার, ১২ অক্টোবর সকাল সোয়া ৮টায় পৌরসভার শিবপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আছিরন নেছা বোয়ালমারী পৌরসভার উত্তর শিবপুর গ্রামের ৫নং ওয়ার্ডের অবসরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারী মো. নাজিমউদ্দীন শেখের মেয়ে। আছিরনের বিয়ে হয়েছে পার্শ্ববর্তী গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানি উপজেলার মহেষপুর ইউনিয়নের কাগদী গ্রামের নসিমন চালক মো. টুটুল মৃধার সাথে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকালে গোপালগঞ্জের গোবরা থেকে রাজশাহী যাচ্ছিল টুঙ্গীপাড়া এক্সপ্রেস। সকাল সোয়া ৮টার দিকে বোয়ালমারী রেলস্টেশন ত্যাগ করে। রেলস্টেশন থেকে মাত্র ২০০ ফুট দূরে পৌরসভার শিবপুর এলাকায় দাসের বাড়ির রেলগেটের কাছে আইয়ুব মীরের বাড়ির সামনে রেললাইনের ওপর বসে ছিলেন মানসিক ভারসাম্যহীন আছিরন নেছা।

এ সময় আছিরন নেছার কোলে তার তিন বছরের শিশুপুত্র আরিয়ান ছিল। টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসের চালক বারবার হুইসেল দিলেও আরিয়ান নেছা রেললাইনের উপর থেকে না ওঠায় দ্রুতগামী টুঙ্গীপাড়া এক্সপ্রেসে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। এ সময় তার কোলের শিশুপুত্র আরিয়ানের পা এবং মাথা মারাত্মকভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়।

বোয়ালমারী ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে লা-শ উদ্ধার করে এবং স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহত শিশু আরিয়ানকে হাসপাতালে পাঠায়। আরিয়ানকে সাথে সাথে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তারিকুল ইসলাম নাদিম প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

উল্লেখ্য, আছিরন নেছা মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় মাস দেড়েক আগে শ্বশুরবাড়ি থেকে বাবার বাড়ি এসে কবিরাজি চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর

spot_img